বুধবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৮

প্রচ্ছদ > ক্যাম্পাস > জাবিতে আর্ন্তজাতিক সম্পর্ক বিভাগের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

জাবিতে আর্ন্তজাতিক সম্পর্ক বিভাগের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

lসিটুসি ডেস্কঃ

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য আয়োজনের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হল  আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের পুনর্মিলনী-২০১৭। উৎসবমুখর এ আয়োজনের আমেজ ছড়িয়ে পরে গোটা ক্যাম্পাসে। দিনটি যেন নবীন-প্রবীণের এক মিলন মেলায় পরিনত হয়। পুনর্মিলনীতে অংশগ্রহণ করতে সকাল থেকেই বিভাগের প্রাঙ্গণে ভীড় জমাতে থাকে বর্তমান শিক্ষার্থী সহ সাবেক শিক্ষার্থীরা। নানা আয়োজনের মধ্য উৎসবমুখর দিনটি অতিবাহিত করে বিভাগের সকল শিক্ষক-শিক্ষাথীরা।

১৮ ফেব্রুয়ারি সকাল ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি অধ্যাপক আবুল হোসেন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষাথীদের নিয়ে এক বার্ণাঢ্য র‌্যালীর শুভ উদ্ভোদন করেন। এসময় প্রো-ভিসি তার বক্তব্যে বলেন, পুনর্মিলনীর মাধ্যমে শিক্ষক-শিক্ষর্থীদের মধ্যকার সম্পর্কূ দৃঢ় হয়। আজ আর্ন্তজাতিক সম্পর্ক বিভাগে আয়োজন সার্থক হোক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের মান বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

বিভাগীয় সভাপতি ড. মো খালিদ কুদ্দুস বলেন, ‘প্রাণের মাঝে আয়’ এ স্লোগানের মাধ্যমেই আমাদের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের বিদ্যমান একাত্মতা বৃদ্ধির অন্যতম অর্জন হল আজকের পুনর্মিলনী। এ পুনর্মিলনীর মাধ্যমে আমরা সকলের সুখ-দুঃখ ভাগ করে নিতে পারবো যা, আগামীর দিনগুলিতে সহায়ক ভুমিকা পালন করবে।

আরো বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ড. তারেক শামসুর রহমান, অধ্যাপক ড. আবুল কালাম আজাদ। এসময় বিভাগের সকল শিক্ষকসহ দুইশতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

এদিন বিকাল ৪টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে সাবেক শিক্ষার্থীরা তাদের আনন্দ-বেদনার সৃত্মি উপস্থাপন করেন। এরপর প্রধান অতিথি উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের উপস্থিতে চারজন গুনী ব্যাক্তিকে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয়।

তারা হলেন- দেশের প্রথম নারী উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি ড. আতাউর রহমান খান, সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আলাউদ্দিন আহমেদ, আন্তর্জাতিক রাজনীতি বিশ্লেষক অধ্যাপক ড. তারেক শামসুর রহমান এবং বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হয় অধ্যাপক ড. আবদুল্লাহ হেল কাফি এবং ড. মো: খালিদ কুদ্দুসকে

দিনব্যাপী এ আয়োজনে সকাল সাড়ে নয় টায় বিভাগের সকলের মধ্যে টি-শার্ট, নাস্তা প্রদান, সকাল ১১টায় বার্ণাঢ্য র‌্যালী, দুপুরের খাবার, নবীন-প্রবীনের আড্ডা, সৃত্মিচারন, পুরষ্কার বিতড়ন, সম্মাননা প্রদান, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং সবশেষে শিরোনামহীন ব্যান্ড দল মাতায় মুক্তমঞ্চের দর্শকদের।

পাঠকের মন্তব্য

আপনার ই-মেইল অপ্রকাশিত থাকবেবক্সটি পূরণ করুন *

*

Pin It on Pinterest

Shares
Share This